স্টাফ রিপোর্টার : ভিসা ইন্টারন্যাশনাল ডেবিট কার্ড এবং ডিপোজিট ডাবল ইনস্টলমেন্ট স্কিম নামে দুটি ব্যাংকিং সেবা উদ্বোধন করেছে এবি ব্যাংক লিমিটেড।

রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে এক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সোমবার এই সেবার যাত্রা শুরু করে ব্যাংকটি। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এবি ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মশিউর রহমান চৌধুরী।

এ ছাড়াও ছিলেন এবি ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাজ্জাদ হোসাইন, আইটি বিভাগীয় প্রধান রিয়াজুল ইসলাম, রিটেইল ব্যাংকিং বিভাগীয় প্রধান মিজান রহমান এবং উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক শামসিয়া মুতাসিম। ব্যাংকের রিটেইল ব্যাংকিং বিভাগের প্রধান সৈয়দ মিজানুর রহমান ও প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা রিয়াজুল ইসলাম নতুন প্রোডাক্ট সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরেন।

ভিসা ইন্টারন্যাশনাল ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে এবি ব্যাংকের যে কোনো গ্রাহক যে কোনো দেশ থেকে এই সেবা নিতে পারবেন। বাংলাদেশে এ ধরনের সেবা এই প্রথম বলে দাবি করে ব্যাংকটি। এবি ব্যাংকের গ্রাহকদের সত্যিকারের গেøাবাল কার্ড সেবা প্রদান করা এই সার্ভিসের মূল উদ্দেশ্য বলে জানান ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

মেডিকেল, হোটেল, শপিং, হজ এবং ভ্রমণের ক্ষেত্রে সহায়ক ভ‚মিকা পালন করবে এ ডেবিট কার্ড এমনটাই দাবি করছে ব্যাংকটি। ডিপোজিট ডাবল ইনস্টলমেন্ট স্কিমের মাধ্যমে প্রাথমিক ডিপোজিট এবং সামান্য মাসিক কিস্তিতে মাত্র তিন বছরে জমাকৃত টাকা দ্বিগুণ হবে। ব্যক্তিগতভাবে অথবা যে কোনো ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান এই সেবা গ্রহণ করতে পারবে বলে জানিয়েছে ব্যাংকটি।

নতুন এ সেবা নিতে হলে প্রতিটি গ্রাহককে কমপক্ষে ৫০ হাজার টাকা ডিপোজিট করতে হবে। পাশাপাশি প্রতি মাসে কমপক্ষে ৯১০ টাকা হারে তিন বছর কিস্তি দিতে হবে। সব মিলিয়ে তিন বছর পর মোট এক লাখ টাকা গ্রাহককে বুঝিয়ে দেবে ব্যাংক।

অনুষ্ঠানে ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মশিউর রহমান চৌধুরী বলেন, দেশের প্রথম প্রজন্মের ব্যাংক হিসেবে সবসময় নতুন প্রোডাক্ট চালু করে এবি ব্যাংক। ভিসা ইন্টারন্যাশনাল ডেবিট ও তিন বছরে ডাবল বেনিফিট স্কিমও দেশে নতুন। গ্রাহকের আস্থা ভালোবাসায় আজ আমাদের আমানত ২৪ হাজার কোটি টাকা।

দেশে ১০৪টি এবং বিদেশে একটি শাখার মাধ্যমে ৫ লাখ গ্রাহককে সেবা দেয়া হচ্ছে। এবি ব্যাংক নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের বিষয়ে এমডি বলেন, সংবাদ করার আগে আমাদের ব্যাখ্যা নিলে সঠিক তথ্য প্রকাশ পেত। অফশোর ব্যাংকিংয়ে বিনিয়োগের বিষয়ে বলেন, ঋণের ৪৬৫ মিলিয়ন ডলারের মধ্যে অর্ধেক ফেরত এসেছে। এ অর্থ অসৎ উদ্দেশে নয়, প্রক্রিয়াগত কারণে গিয়েছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here