এনার্জিপ্যাকের আইপিও ‘আবেদন ফেব্রুয়ারির শেষে’

5
8733

সিনিয়র রিপোর্টার : এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশনের প্রাথমিক গণপ্রস্তাব  (আইপিও) আবেদন ফেব্রুয়ারি মাসের শেষে শুরু হবে। চলতি মাসে ‌ইতোমধ্যে চলছে ড্রাগন সোয়েটারের আইপিও আবেদন। এনার্জিপ্যাক আইপিও অনুমোদনের ধারাবাহিতা বজায় রেখে পুঁজিবাজার থেকে টাকা উত্তোলন করবে।

পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) বিশেষ একটি সূত্র শনিবার এ তথ্য জানায়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে তিনি ব্যখ্যা করে বলেন, ফেব্রয়ারি মাসের শুরুতে বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে একমি ল্যাবরেটরিজ লিমিটেডের নিলাম শুরু হবে। দ্বিতীয় সপ্তাহে ডরিণ পাওয়ার এবং ফেব্রুয়ারির মধ্যবর্তী সময়ে বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্সুরেন্সের আবেদন চলবে। যে কারণে আইপিও ধারাবাহিতা বজায় রেখে এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশনের আবেদন ফেব্রয়ারি মাসের শেষে হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি জানান।

সামিট অ্যালায়েন্স পোর্ট লিমিটেডের রাইট আবেদন আগামী ৩০ মার্চ শুরু হয়ে চলবে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত। ৫টি শেয়ারের বিপরীতে ১টি রাইট শেয়ার দেবে কোম্পানিটি। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি।

বিএসইসি জানিয়েছে, এনার্জিপ্যাক পাওয়ার আইপিওতে ১ কোটি ৬৭ লাখ ৩০ হাজার ২০০ শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে প্রায় ৪২ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে। ১০ টাকা অভিহিত মূল্য বা ফেসভ্যালুর সঙ্গে ১৫ টাকা অধিমূল্য বা প্রিমিয়াম যোগ করে আইপিওতে প্রতিটি শেয়ারের বিক্রয়মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২৫ টাকা।

বাজার থেকে সংগৃহীত টাকা কোম্পানিটি ব্যাংকঋণ পরিশোধ ও চলতি মূলধনের কাজে লাগাবে।

বিএসইসি আরও জানিয়েছে, আইপিও আবেদনের সঙ্গে কোম্পানিটি গত পাঁচ বছরের নিরীক্ষিত যে আর্থিক প্রতিবেদন দাখিল করেছে তাতে এটির শেয়ারপ্রতি আয় দেখানো হয়েছে ২ টাকা ৯১ পয়সা। কোম্পানিটির শেয়ারের ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টস।

5 COMMENTS

bilash শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন Cancel reply

Please enter your comment!
Please enter your name here