উভয় পুঁজিবাজারে লেনদেন কমেছে

0
307
স্টাফ রিপোর্টার : টানা ৮৪ ঘণ্টার হরতালের তৃতীয় দিন মঙ্গলবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন কমেছে। বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের ডাকা হরতালে সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবস মঙ্গলবার ডিএসইতে টেক্সটাইল খাতের প্রাধান্য লক্ষ্য করা গেছে।
পুঁজিবাজারের মোট লেনদেনে মঙ্গলবার এ খাতের অবদান দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। গত দুইদিনে টেক্সটাইল খাতের অবদান ছিল মোট লেনদেনের প্রায় ৩৮ শতাংশ। ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৩৮১ কোটি ৩ লাখ টাকা। গত সোমবার লেনদেন হয়েছিল ৫০৪ কোটি ৩৮ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড।

অন্যদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক বাড়লেও কমেছে মোট লেনদেনের পরিমাণ। এদিন দেশের সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৪ কোটি ২৯ লাখ টাকা।

এদিকে ডিএসইতে খাতভিত্তিক লেনদেনের শীর্ষে রয়েছে ব্যাংক খাত। এর পরে রয়েছে মিউচ্যুয়াল ফান্ড ৫ শতাংশ, টেলিকমিউনিকেশন খাত ৪ শতাংশ, জ্বালানি ও বিদ্যুৎখাত ৯ শতাংশ, আর্থিক প্রাতিষ্ঠান খাত ৬ শতাংশ, টেক্সটাইল খাত ২২ শতাংশ এবং ইনস্যুরেন্স খাতের অবদান ৬ শতাংশ।

এদিন লেনদেন শুরুর ৫ মিনিট পর সকাল ১০টা ৩৫ মিনিটে ডিএসইর সাধারণ সূচক ১১ পয়েন্ট বেড়ে লেনদেন শুরু হয়। কিন্তু লেনদেন শেষে ডিএসইএক্স সূচক প্রায় ১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৪ হাজার ১৯৭ পয়েন্টে। লেনদেন শেষে ডিএসই-৩০ সূচক ২ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়ে অবস্থান করে ১ হাজার ৪৩৮ পয়েন্টে।

এ সময় পর্যন্ত ডিএসইতে ১২৮টি প্রতিষ্ঠানের দাম ও সাধারণ সূচক কমেছে প্রায় ১ পয়েন্ট। লেনদেন হয়েছে ৩৮১ কোটি ৩ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট।

ডিএসইতে লেনদেন হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দাম বৃদ্ধি পেয়েছে ১২৮টির, কমেছে ১২৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৯টির দাম।

লেনদেনের ভিত্তিতে (টাকায়) ডিএসইর শীর্ষ দশ কোম্পানির তালিকায় ওঠানামা করছে- জেনারেশন নেক্সট, আরগন ডেনিমস, আরএন স্পিনিং, গ্রামীণ ফোন, আইএফআইসি ব্যাংক, এনভয় টেক্সটাইল, বেক্সিমকো লিমিটেড, ওয়ান ব্যাংক, ইউসিবিএল এবং ইউনাইটেড এয়ার।

অন্যদিকে, লেনদেন শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ সূচক (সিএসইএক্স) ৩২ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়ে ৮ হাজার ২২৯ পয়েন্টে, সিএসই-৩০ সূচক ৭০ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়ে ১০ হাজার ৯০২ পয়েন্টে এবং সিএএসপিআই সূচক ৬৯ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়ে ১৩ হাজার ৬২ পয়েন্টে অবস্থান করে। এসময় পর্যন্ত সিএসইতে লেনদেন হয়েছে মোট ৪৪ কোটি ২৯ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here