ডেস্ক রিপোর্টঃ ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে রাইড শেয়ারিং খাতে (উবার ও পাঠাওয়ের মতো রাইড শেয়ারিং) মূল্য সংযোজন কর (মূসক বা ভ্যাট) আরোপ করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এবিআর)। তবে ভ্যাট মুক্ত থাকবেন উবার ও পাঠাওয়ের রাইড শেয়ারিংয়ের গ্রাহকরা। এনবিআর সূত্রে া তথ্য জানা যায়।

এনবিআর সূত্রে জানা গেছে, রাইট শেয়ারিং ব্যবহারকারীদের ওপর ভ্যাট আরোপ করা হয়নি। চালক ও রাইড শেয়ারিং কোম্পানির মধ্যে কমিশনের অর্থ ভাগাভাগির পর কোম্পানিগুলো যে পরিমাণ কমিশন পাবে তার ওপর ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে।

গত ২৮ জুন এ সংক্রান্ত একটি ব্যাখ্যা দিয়েছে এনবিআর। ব্যাখ্যায় বলা হয়েছে, বর্তমানে মোবাইল অ্যাপভিত্তিক বিভিন্ন পরিবহনের রাইড শেয়ারিং সেবা খুব দ্রুত জনপ্রিয় হয়েছে। কিন্তু এ সেবাটি ভ্যাট অব্যাহতিপ্রাপ্ত দ্বিতীয় তফসিলের অন্তর্ভুক্ত না হওয়ায় ভ্যাট অব্যাহতিপ্রাপ্ত নয়।

ভ্যাট আইনের দ্বিতীয় তফসিলের অনুচ্ছেদ ৬-এর (গ) অনুযায়ী সব ধরনের বাহনের চালকের সেবা ব্যক্তিগত হিসেবে ভ্যাট অব্যাহতি সুবিধা ভোগ করে। তাই গাড়ির চালক সেবার বিপরীতে যে অংশ প্রকৃতপক্ষে নিজে গ্রহণ করেন সে অংশটুকু ভ্যাট অব্যাহতিপ্রাপ্ত।

তবে তা ব্যতীত রাইড শেয়ারিং অ্যাপ পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান বা কর্তৃপক্ষ যে পরিমাণ কমিশন পায় তার ওপর ৫ শতাংশ হারে ভ্যাট আদায়যোগ্য হবে।