ইস্যু মূল্যের নিচে ২০ কোম্পানির শেয়ার দর

1
1573

স্টাফ রিপোর্টার : দেশের পুঁজিবাজারে দীর্ঘদিন মন্দা দশা অব্যাহত রয়েছে। মন্দার কবলে পড়ে কমেছে তালিকাভুক্ত অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারদর। এরই ধারাবাহিকতায় অস্বাভাবিকহারে কমেছে বিভিন্ন খাতের বিশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারদর। একসময় বাজারে এসব শেয়ারের দর এবং চাহিদা থাকলেও মন্দায় সেই পরিস্থিতি পাল্টে গেছে।

বর্তমানে এসব শেয়ার মিলছে ১০ টাকার কমে। এই তালিকায় রয়েছে ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, বস্ত্র, বিমা, ওষুধ ও রসায়ন এবং ভ্রমণ ও অবকাশ খাতের কোম্পানি।

পতনের জের ধরে যেসব কোম্পানির শেয়ারদর ১০ টাকার নিচে নেমে গেছে, সেই তালিকায় রয়েছে ব্যাংক খাতের আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক। আর্থিক খাতে এ ধরনের কোম্পানি রয়েছে পাঁচটি। এগুলো হচ্ছে- বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স, ফারইস্ট ফাইন্যান্স, পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স, প্রিমিয়ার লিজিং ও ফাস্ট ফাইন্যান্স।

বস্ত্র খাতের খাতটির আটটি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার এখন ১০ টাকার কমে কেনাবেচা হচ্ছে। এগুলো হলো-অলটেক্স, সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল, ঢাকা ডায়িং, ফ্যামিলি টেক্স, জেনারেশন নেক্সট, মেট্রো স্পিনিং, তাল্লু স্পিনিং এবং তুংহাই নিটিং। বিমা খাতের ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স রয়েছে এ তালিকায়।

এছাড়া ওষুধ ও রসায়ন খাতের দুই কোম্পানির শেয়ারদর ১০ টাকার নিচে নেমে গেছে। কোম্পানি দুটি হচ্ছে বেক্সিমকো সিনথেটিক ও কেয়া কসমেটিকস। তালিকায় ভ্রমণ ও অবকাশ খাতের ইউনাইটেড এয়ারওয়েজও রয়েছে।

বর্তমানে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানির মধ্যে সবচেয়ে কম দরে পাওয়া যাচ্ছে ইউনাইডেট এয়ারওয়েজের শেয়ার। বুধবার দিন শেষে এ শেয়ার হাতবদল হয় তিন টাকা ৮০ পয়সায়। পরের অবস্থানে রয়েছে বস্ত্র খাতের সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল। বর্তমানে এই শেয়ার লেনদেন হচ্ছে পাঁচ টাকা ১০ পয়সায়।

তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক। সর্বশেষ এ শেয়ার লেনদেন হয় পাঁচ টাকা ২০ পয়সায়। পরের অবস্থানে থাকা ঢাকা ডায়িং এবং তুংহাই নিটিংয়ের শেয়ার কেনাবেচা হচ্ছে পাঁচ টাকা ৪০ পয়সায়। বাকি প্রতিষ্ঠানগুলোর শেয়ার কেনাবেচা হচ্ছে ১০ টাকার কমে।

এদিকে শেয়ারদর কমে যাওয়ার জন্য কোম্পানির আর্থিক অবস্থা এবং বাজার পরিস্থিতিকে দায়ী করছেন বাজারসংশ্লিষ্টরা। তারা বলেন, এসব শেয়ারদর অস্বাভাবিকহারে কমে যাওয়ার প্রধান কারণ প্রতিষ্ঠানের আর্থিক অবস্থা।

আর্থিক অবস্থা খারাপ হওয়ার কারণে বেশিরভাগ কোম্পানি দীর্ঘদিন শেয়ারহোল্ডারদের কোর রিটার্ন দিতে পারছে না, যে কারণে এসব শেয়ারের চাহিদা ও দর কমে গেছে। পাশাপাশি দীর্ঘদিন বাজারের মন্দা পরিস্থিতি দর পতনকে আরও বেগবান করেছে, যে কারণে এসব কোম্পানির অবস্থা করুণ।

1 COMMENT

  1. ইউনাইটেড এয়ারের মালিকানা পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ৩.৩০-৩.৬০ টাকায়। বছর বছর ধরে মুল্য সংবেদনশীল ত্তথ্য প্রকাশিত হচ্ছে।মুল্য সংবেদনশীল তথ্য হওয়ায় কোন পক্ষই মুখ খুলতে রাজি নন।এমন তথ্য পাওয়া যাচ্ছে।এসব তথ্যের উপর ভিত্তি করে আশায় বুক বাধছি। শেষে দেখা যায় সব…. শেষ। জীবন একটাই এত ছল চাতুরী করে লাভ কি?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here