ইন্টারকন্টিনেন্টাল নামে ১৩ সেপ্টেম্বর উদ্বোধন রূপসী বাংলার

0
391

সিনিয়র রিপোর্টার : সংস্কারের জন্য চার বছর বন্ধ থাকার পর ইন্টারকন্টিনেন্টাল নামে খুলতে যাচ্ছে পাঁচ তারকা হোটেল রূপসী বাংলা। আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধনের এক মাসের মধ্যে এর বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু হবে।

সোমবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে হোটেলটির সংস্কার কার্যক্রমের অগ্রগতি তুলে ধরে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে একথা জানানো হয়।

কমিটির সভাপতি মুহম্মদ ফারুক খান সাংবাদিকদের বলেন, মন্ত্রণালয় থেকে আমাদের জানানো হয়েছে, এ মাসের ১৩ তারিখেই হোটেলটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে।

আন্তর্জাতিক মানের এসব হোটেলের একটা নিয়ম রয়েছে, উদ্বোধনের পর কিছুদিন পরীক্ষামূলকভাবে অপারেশন করার। এটার ক্ষেত্রে এক মাস পরীক্ষামূলক অপারেশন শেষে তারা বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু করবে বলে জানিয়েছে।

সরকারি কোম্পানি বাংলাদেশ সার্ভিসেস লিমিটেড এই হোটেলটির মালিক। পাঁচ দশকের বেশি সময় পুরনো হোটেলটির ব্যবস্থাপনায় ২০১২ সালে বিশ্বজুড়ে পরিচিত ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেল গ্রুপের সঙ্গে চুক্তি করার দুই বছর পর ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে এর সংস্কার কাজ শুরু হয়।

নকশায় নতুন যাত্রা শুরু হবে ঢাকা ইন্টারকন্টিনেন্টালের

ইন্টারকন্টিনেন্টাল গ্রুপ ১৯৬৬ থেকে ১৯৮৩ পর্যন্ত এ হোটেলের ব্যবস্থাপনায় ছিল। ইন্টারকন্টিনেন্টালের পর ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব এসেছিল আন্তর্জাতিক হোটেল সেবাদানকারী আরেক প্রতিষ্ঠান শেরাটন।

প্রায় ২৮ বছর পর ২০১১ সালের এপ্রিলে শেরাটন চলে গেলে বাংলাদেশ সার্ভিসেস লিমিটেড নিজেই হোটেলটির ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব নেয়। তখন রূপসী বাংলা নামে চালু হয় বাংলাদেশের নানা গুরুত্বপূর্ণ ইতিহাসের সঙ্গে জড়িয়ে থাকা এই হোটেল।

রাজধানী ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় ১৯৬২ সালে প্রতিষ্ঠিত এ হোটেলটি ১৯৮১ সালে সম্প্রসারণ এবং বিভিন্ন সময়ে কিছু কিছু সংস্কার হলেও আন্তর্জাতিক ফাইভ স্টার মানে তোলার জন্য বৈশ্বিক হোটেল পরিচালন কোম্পানিগুলোর পক্ষ থেকে তাগাদা আসছিল।

অতিথিদের জন্য রূপসী বাংলায় ২৭২টি বিভিন্ন ধরনের কক্ষ ছিল, যার প্রতিটির গড় আয়তন ২৪ থেকে ২৬ বর্গমিটার।

সংস্কারের আগে কর্তৃপক্ষ বলছিল, ফাইভ স্টার হোটেলের আন্তর্জাতিক মান রক্ষার জন্য সংস্কারের মাধ্যমে কক্ষগুলো বড় করা হবে। ফলে কক্ষসংখ্যা কমে হবে ২৩০টি। এছাড়া আসবাব, সুইমিং পুল, জিমনেশিয়ামের আধুনিকায়নসহ অন্যান্য সেবাও যুক্ত করা হবে।

বন্ধ হওয়ার আগে রূপসী বাংলা

সংস্কারের জন্য ২০১৪ সালের ১ সেপ্টেম্বর বন্ধ করে দেওয়া হয় হোটেলটি। চুক্তি অনুযায়ী ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল। পরে সেটি পিছিয়ে ওই বছরের অক্টোবরে নতুন সময় ঠিক হয়। তারও পরে ২০১৭ সালের মার্চে শেষ হবে বলে জানানো হলেও তা হয়নি। এই সংস্কার কাজের তত্ত্বাবধান করছে ইন্টারকন্টিনেন্টাল, যাতে সম্ভাব্য ব্যয় ধরা হয় ৪৩০ থেকে ৪৫০ কোটি টাকা।

চীনা প্রতিষ্ঠান নরিনকো ইন্টারন্যাশনাল ও দেশীয় প্রতিষ্ঠান চারুতা প্রাইভেট লিমিটেড যৌথভাবে এ কাজের ঠিকাদার। সংস্কার কাজে নিয়োজিত এক শ্রমিকের মৃত্যুর পর প্রতিষ্ঠান দুটির কর্তাব্যক্তিদের বিরুদ্ধে রমনা থানায় মামলাও হয়।

কাজের অগ্রগতি নিয়ে সংসদীয় কমিটির অসন্তোষের পরিপ্রেক্ষিতে এর আগে জানানো হয়েছিল, নকশার ত্রুটির কারণে দেরি হচ্ছে।

ফারুক খানের সভাপতিত্বে সোমবার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সংসদীয় কমিটির সদস্য বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী একেএম শাহ্জাহান কামাল, মো. আলী আশরাফ, তানভীর ইমাম, মো. নজরুল ইসলাম চৌধুরী, কামরুল আশরাফ খান এবং সাবিহা নাহার বেগম অংশ নেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here