ইউনাইটেড পাওয়ারের লেনদেন রোববার ও অন্যান্য

0
217

স্টাফ রিপোর্টার : রেকর্ড ডেটের পর রোববার পুঁজিবাজারে পুনরায় শুরু হচ্ছে ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের লেনদেন। রেকর্ড ডেটের কারণে বৃহস্পতিবার শেয়ারটির লেনদেন বন্ধ ছিল।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে জানা গেছে, ৩০ জুন সমাপ্ত ২০১৮ হিসাব বছরের জন্য ৯০ শতাংশ নগদ ও ২০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ সুপারিশ করেছে কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ। আলোচ্য সময়ে বিদ্যুৎ খাতের এ কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১১ টাকা ৫১ পয়সা, বোনাস শেয়ার সমন্বয়ের পর আগের বছর যা দাঁড়িয়েছিল ১০ টাকা ৪৬ পয়সা।

এক বছরের ব্যবধানে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি নিট পরিচালন নগদ প্রবাহ ৮১ পয়সা বেড়ে দাঁড়ায় ১০ টাকা ৮১ পয়সা। ৩০ জুন কোম্পানির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়ায় ৪০ টাকা ৮০ পয়সা। আগামী ৩০ অক্টোবর রাজধানীর আর্মি গলফ ক্লাবে কোম্পানিটির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে।

২০১৭ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য ১০ শতাংশ স্টক ও ৯০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল ইউনাইটেড পাওয়ার। ২০১৬ সালের ৩০ জুন ১৮ মাসে সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য ১২৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেয় কোম্পানিটি। ২০১৪ হিসাব বছরে ৩০ শতাংশ নগদ ও ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ পান কোম্পানিটির শেয়ারহোল্ডাররা।

সর্বশেষ অনিরীক্ষিত প্রতিবেদন অনুসারে হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে (জুলাই ১৭-মার্চ ১৮) ৮ টাকা ৪১ পয়সা ইপিএস দেখিয়েছে কোম্পানিটি, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ৮ টাকা ৫ পয়সা।

দীর্ঘমেয়াদে কোম্পানিটির ঋণমান ‘ট্রিপল এ’ ও স্বল্পমেয়াদে ‘এসটি-ওয়ান’। ২০১৭ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত কোম্পানিটির নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন ও হালনাগাদ অন্যান্য তথ্যের ভিত্তিতে এ প্রত্যয়ন করে ইমার্জিং ক্রেডিট রেটিং লিমিটেড (ইসিআরএল)।

২০১৫ সালে শেয়ারবাজারে আসা দেশের একমাত্র কমার্শিয়াল আইপিপি কোম্পানিটির অনুমোদিত মূলধন ৮০০ কোটি টাকা ও পরিশোধিত মূলধন ৩৯৯ কোটি ২৩ লাখ ৯০ হাজার টাকা। রিজার্ভ ৮৯২ কোটি ২৫ লাখ টাকা। মোট শেয়ারের ৯০ শতাংশই কোম্পানির উদ্যোক্তা-পরিচালকদের কাছে, প্রতিষ্ঠান ৬ দশমিক ৫৬, বিদেশী শূন্য দশমিক শূন্য ৮ ও বাকি মাত্র ৩ দশমিক ৩৬ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীর হাতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here