ইউনাইটেড এয়ারের শেয়ার ধারণ নিয়ে মন্ত্রণালয়ের চিঠি

0
781
স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কাছে ইউনাইটডে এয়ারওয়েজ সম্পর্কে মতামত চেয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়। ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের পরিচালকদের ন্যূনতম ২ শতাংশ শেয়ার ধারণের বাধ্যবাধকতা থেকে অব্যাহতি দেয়ার বিষয়ে এ মতামত চাওয়া হয়েছে।
গত ২১ মে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের উপ-সচিব মোঃ নাসির উদ্দিন আহমেদ স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি চিঠি বিএসইসিতে পাঠানো হয় বলে মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে। তবে চিঠিটি বিএসইসি হাতে পায় গত ২৫ মে।
চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, পুঁজিবাজারের স্বার্থে স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত কোম্পানির পরিচালকদের শেয়ার ধারণ সংক্রান্ত বিএসইসির ২২ নবেম্বরের ২০১১ সালের জারি করা নির্দেশনা থেকে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজকে অব্যাহতি দেয়ার প্রস্তাবের ওপর মতামত দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন জবাব পাওয়া যায়নি। এ অবস্থায় ইউনাইটেড এয়ারওয়েজকে অব্যাহতি দেয়ার বিষয়ে মতামত দেয়ার জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।
এর আগে বিনিয়োগকারীদের স্বার্থরক্ষা ও ব্যবসা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে বিএসইসি ও বেসরকারী বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচ) সহায়তা চেয়ে চিঠি দেয় ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ। বর্তমান প্রেক্ষাপটে অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে সরকারের পক্ষ থেকে ৭ ধরনের সহায়তা প্রয়োজন বলে জানায় প্রতিষ্ঠানটি। গত ৩০ এপ্রিল ইউনাইটেড এয়ারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্যাপ্টেন তসরিবুল ইসলাম চৌধুরী স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি চিঠি বিএসইসির চেয়ারম্যানের কাছে পাঠানো হয়।
ইউনাইটেড এয়ারের চাওয়া সহায়তাগুলো হলো- বিএসইসির জারি করা ২০১১ সালের ২২ নবেম্বরের নির্দেশনা থেকে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজকে অব্যাহতি দেয়া। এতে দেশীয় এয়ারলাইন্সটি টিকে থাকবে ও বিকশিত হবে বলে ইউনাইটেড কর্তৃপক্ষের দাবি।
বেবিচের মূল পাওনা পরিশোধের ক্ষেত্রে কিস্তির ব্যবস্থা করা। বেবিচের সারচার্জ মওকুফ করা। প্রতিষ্ঠনটির বিকাশের জন্য অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পরিচালনা সংক্রান্ত সকল প্রকার চার্জ আগামী পাঁচ বছরের জন্য মওকুফ করা। দেশীয় বিমান সংস্থাগুলোকে ক্রয় মূল্যে জ্বালানি সরবরাহ করা।
এর আগে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের রাইট শেয়ার ইস্যুর ক্ষেত্রে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কাছে আইন শিথিলের সুপারিশ করেছে। গত বছরের নভেম্বর মাসে মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব আবদুর রশিদ স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ সুপারিশ করেন।
রাইট শেয়ার ইস্যুর ক্ষেত্রে তালিকাভুক্ত কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের কাছে সম্মিলিত ৩০ শতাংশ শেয়ার থাকা বাধ্যতামূলক। ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ কোম্পানির ক্ষেত্রে এ বিষয়টি শিথিল করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে বিএসইসিকে।
ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের পরিশোধিত মূলধন বেশি হওয়ার কারণে এ নির্দেশ দেয় মন্ত্রণালয়। চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়, কোম্পানির ব্যবসার ধরন ভেদে এ আইনে ভিন্নতা রাখা উচিত বলে মনে করে অর্থ মন্ত্রণালয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here