`বিনিয়োগকারীদের বাজারমুখী করতে পারলে পুঁজিবাজারের ভুমিকা বাড়বে’

0
830

স্টাফ রিপোর্টার : পুঁজিবাজারের বর্তমান সংকট ও আস্থাহীনতা দূর করতে নীতি সহায়তা চেয়েছে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ(সিএসই)। এ জন্যে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে সিএসইর প্রস্তাবনাকে বিবেচনায় নেওয়ার দাবিও জানানো হয়।

রোববার বিকেলে বাজেট পরবর্তী এক সংবাদ সম্মেলনে সিএসই এই দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে সিএসইর নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম সাইফুর রহমান মজুমদার বলেন, পুঁজিবাজারের চলমান সংকট ও আস্থাহীনতা দুর করা গেলে এবং বিভিন্ন প্রণোদনা ও নীতি সহায়তার মাধ্যমে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের বাজারমুখী করতে পারলে অর্থনৈতিক উন্নয়নে পুঁজিবাজারের ভুমিকা বহুগুণে বাড়বে।

তিনি বলেন, সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পের সাথে পুঁজিবাজার অবিচ্ছিদ্ধ অংশ। তবে তা বাজেটে তার কোনো স্পষ্টতা নেই। স্বল্প ও দীর্ঘ মেয়াদে প্রণোদনা পেলে বাজারে ইতিবাচক প্রভাব পড়বে। তাতে সক্ষম কোম্পানিগুলো বাজারে আসতে আগ্রহী হবে। বাজারে আস্থা বাড়বে। লেনদেনে গতি আসবে বলে মনে করেন তিনি।

তিনি বলেন, সরকারের রূপকল্প বাস্তবায়নে পুঁজিবাজারকে আরও গতিশীল করতে হবে। কয়েকটি পদক্ষেপ বিবেচনার দাবি জানান তিনি। এর মধ্যে স্বল্প ও মধ্য মেয়াদী স্থিতিশীলতা ও আস্থা প্রতিষ্ঠার জন্য সুস্পষ্ট প্রণোদনা দেওয়া, ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন পরবর্তী ৫ বছরের কর সুবিধা প্রদান, উৎসে কর কমানো, লভ্যাংশের ওপর দ্বৈতকর নীতি পরিহর করা।

ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, বাজারের ক্রান্তিকাল দুর করতে বিশেষ প্রণোদনার প্রয়োজন রয়েছে। আমরা যে প্রস্তাবনা দিয়েছিলাম জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে (এনবিআর)। প্রস্তাবনাগুলো পুনরায় বিবেচনা করার জন্য দাবি জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে সিএসই চেয়ারম্যান ড.  আব্দুল মজিদ বলেন, বাজেট এখনও শেষ হয়ে যায়নি। এখনও আমাদের প্রস্তাবগুলো ভেবে দেখার সুযোগ আছে। আমরা আশা করছি পুঁজিবাজারের স্বার্থে প্রস্তাবগুলো বিবেচনা করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে সিএসই পরিচালক খায়রুল আনাম চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here