আশঙ্কা কাটছে ইউনাইটেড এয়ারের

27
34229

শাহীনুর ইসলাম : নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও ফের ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত দেশের একমাত্র বিমান কোম্পানি ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেড। দুটি কোম্পানির সঙ্গে যৌথভাবে বিমান পরিচালনা নিয়ে অগাস্ট মাসে চুক্তি এবং রি-আইপওতে আসার আভাস মিলেছে।

বিশেষভাবে পরিকল্পিত রুপরেখায় ‘ত্রিমূখী সম্ভাবনার’ কার্যক্রম নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে বিমান কর্তৃপক্ষ।

সব মিলে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেডের আশঙ্কা কাটতে শুরু করেছে। একইসঙ্গে আদালতের অনুমোদন না থাকায় বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) করতে না পারলেও ওভার দ্য কাউন্টার মার্কেটে (ওটিসি) যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন কোম্পানির চেয়ারম্যান।

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেড

অনিবার্য কারণবশত ২০১৬ সালের ৫ মার্চ থেকে বিমান উড্ডয়ন বন্ধ হয়। সেইসঙ্গে বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) করতে না পারায় ওভার দ্য কাউন্টার মার্কেটে (ওটিসি) প্রবেশের আশঙ্কা থাকলেও আদালতের নির্দেশনায় ওটিসিতে যাচ্ছে না।

আদালতের সেই নির্দেশনার কাগজপত্রাদী নিয়ন্ত্রক সংস্থা এবং দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে জমা দেয়া হয়েছে বলে সম্প্রতি জানিয়েছেন ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেড চেয়ারম্যান ক্যাপ্টেন তাসবিরুল আহমেদ চৌধুরী।

বিশেষ একটি সূত্র জানায়, ভারতের স্বনামধন্য একটি বিমান কোম্পানির সঙ্গে যৌথভাবে বাংলাদেশের বিমান পরিচালনা করতে নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েছে ইউনাইটেড এয়ার কর্তৃপক্ষ। এতে বাংলাদেশ সরকারেরও সায় আছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়।

আগামী অগাস্ট মাসে বাংলাদেশ সচিবালয়ে একটি বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে। সভায় বেসামরিক বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল, বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান জিয়াউল কবির ও ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেড চেয়ারম্যান ক্যাপ্টেন তাসবিরুল আহমেদ চৌধুরী উপস্থিত থাকবেন। এছাড়া সেই বৈঠকে আরো কারা থাকবেন এ নিয়ে বৈঠক করা হচ্ছে।

‘মুল্য সংবেদনশীল তথ্য’ হওয়ায় বিষয়টি নিয়ে কোনপক্ষই সরাসরি কথা বলতে চাইছেন না।

ইউনাইটেড এয়ার কোম্পানির সিনিয়র এক কর্মকর্তা চুক্তির জবাবে আলোচনা চলছে বলে স্বীকার করেন। তিনি স্টক বাংলাদেশকে বলেন, মৌখিকভাবে বেশ কয়েকবার যৌথভাবে অপারেট করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে এমডি স্যার ভালো বলতে পারবেন।

ক্যাপটেন তাসবিরুল আহমেদ চৌধুরী

জানতে চাইলে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেডের চেয়ারম্যান ক্যাপটেন তাসবিরুল আহমেদ চৌধুরী বলেন, আমরা বিমান অপারেট করার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। সরকারও সহযোগিতা করছে। আশা করছি, বিনিয়োগকারীদের সেই অপেক্ষার অবসান হবে।

তবে ‘মূল্য সংবেদনশীল বিষয়’ হওয়ায় চুক্তি নিয়ে আগাম কোনভাবেই তিনি আলোচনার শিরোনাম হতে চান না। তিনি বলেন, মূল্য সংবেদনশীল বিষয় নিয়ে কথা বলা সমিচীন হবে না। এছাড়া আরো একটি বিদেশি কোম্পানি আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলে তিনি জানান।

কোম্পানির বিভিন্ন সূত্র জানায়, তিন বছর ধরে বন্ধ থাকা বিমানের উড্ডয়ন শুরু করতে নানামূখী পদক্ষেপ থাকলেও আর্থিক সংকটের কারণে তা ব্যহত হচ্ছে। তবে ব্যবস্থাপনা ব্যয়ের জন্য আইসিবিতে দ্বিতীয় মেয়াদে আবেদন করা ২২৪ কোটি টাকা পাওয়ারও আভাস মিলেছে।

২০১৭ সালে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক : ছবি সংগৃহিত

অন্যদিকে, দেশের সেরা একটি মাচেন্ট ব্যাংকের সিইও নাম না প্রকাশ করার শর্তে বলেন, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেডের কর্তৃপক্ষ রি-আইপিওতে আসার চেষ্টা করছে। গত বছরে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করার পরে কাজ শুরু হয়।

সরকারের সায় নিয়ে দেশের সেরা বেসরকারি খাতের বিমান কোম্পানির কর্তৃপক্ষ এই প্রচেষ্টা করছে। তবে কতো টাকা, কি পরিমাণ শেয়ার এবং এর অগ্রগতি নিয়ে আরো জানতে চাইলে তিনি আর তথ্য দিতে রাজী হননি।

তবে বন্ডের ২২৪ কোটি টাকা সম্পর্কে রাষ্ট্রায়ত্ব প্রতিষ্ঠান ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) সিইও সোহেল রাহমান সম্প্রতি স্টক বাংলাদেশকে বলেন, আমাদের সে চেষ্টা আছে এবং সরকারেরও সদিচ্ছা রয়েছে। তবে এয়ার কর্তৃপক্ষ তাদের কোম্পানির আর্থিক সব প্রতিবেদন জমা না দেয়ায় আর এগুতে পারছি না। তবে সরকার চাইছে, আবারো এই বিমানের কাযক্রম চালু হোক।

বিশেষ সূত্র আরো জানায়, বিমান কর্তৃপক্ষের রি-আইপিওতে আসার চেষ্টা করছে। যে কারণে সব আর্থিক প্রতিবেদন রাষ্ট্রায়ত্ব প্রতিষ্ঠান আইসিবিতে জমা দেয়া হয়নি। বিশেষ পরিকল্পিত একটি রুপরেখার ভেতর দিয়ে ত্রিমূখী সম্ভাবনার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বিমান কোম্পানির কর্তৃপক্ষ।

তবে কবে নাগাদ রৌদ্রকরোজ্জল দুপুরে ডানা মেলবে বিমান, তা অজানা। কিন্তু নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও ফের ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেড।

27 COMMENTS

  1. United Air’s rate was 70 Taka in 2012.

    Share price for this share has come down abnormally low only for rumor. Rumor-based business is a great problem in Bangladesh.

    United Air will resume its operation for sure and their vision is specific. It will be one of the largest airlines in South-East Asia by 2027. Who are able for to do long-term invest in this share would get 300 to 500 Taka rate per share by 2027.

    • উত্থানে লেনদেনো শেষ হয়েছে আজকে।ইউনাইটেড এয়ারের মূল্য ৩.০০টাকা/শেয়ার।আজও০.১০টাকা /শেয়ার উধাও হয়ে গেছে। কত কমলে এর হোতাদের টনক নড়বে?BSEC OR DSE এর করার কিছুই নাই।দাম বাড়লে শোকজ আছে।কমলে করার কিছুই নাই।

  2. Price Sensitive informations are available regarding Unitedair ways year after year.But no influence of price sensitive info on per share of this company.In the past such kind of infos were published successively at Stock Bangladesh.Unfortunately all were fake and bogus. As a result general investors were frauded and loss of their hard earned penny. There should be transparency and accountability in publishing news.

      • Absolutely all the investors wish unbelivable success of unitedair ways because it will change the lot or fate of investors as well as the country earns foreign exchange or currency.Semblance and semblance- tri potentialities of united air.. agreement with other companies… united air soon fly again.. but regreat that all are confined within the papers. In the past it was rain,per share price was 70 Tk and in future it will be storm-saying means living in a cacoon.One can owner of this company paying only 3.30-3.60Tk/share implies that the company is unhealthy. Probaboly it is the lowest price among the listed company of DSE.There is a proverb-Failure is the pillar of success but how many failure of pillars?Total number of securities of this company 828098480 of which directors hold only only only 34448896only.It is pathetic and painful.However, we wish it may fly soon.But when day is unknown.

    • সূচকের উত্থান হচ্ছে আবার পতনও হচ্ছে।কিন্তু ইউনাইটেড এয়ারের উত্থান নেই শুধুই রাম পতন।এখন দাম মাত্র ৩.৩০টাকা/শেয়ার।ভাল ভাল নিউজ আসচ্ছে যা ধাপ্পাবাজি হিসাবে চিহ্নিত হয়েছে। স্বপ্নবাজ বিনিয়োগকারীরা পা দিচ্ছে প্রতারনার ফাদে।স্বপ্ন ভংগ হচ্ছে বারবার-বারংবার। Space and Aeronautics University হচ্ছে বাংলাদেশে।বিমান বিষয়ে পড়াশুনা হবে। ইউএস বাংলা যাত্রিদের টিকিট দিতে পাচ্ছে না।উপায়হীন হয়ে সড়ক পথে যাতায়াত করছেন। মানুষ বাচে কর্মের মাঝে বয়সের কারনে নয়।সুনাম চলে গেলে সুনাম অর্জন করা কঠিন।সামাজিক মর্যাদার দরকার আছে।
      BSEC and DSE কে ধন্যবাদ।প্রতিষ্ঠান দুটির কারণে ৪.১৬%শেয়ার উদ্যোক্তারা এখনও ধারন করছেন।নইলে কি যে হত তা ভগবানই জানতেন।আবার প্রতিটি জেলায় বিমান বন্দর করার জন্য ভাবছে সরকার। কিন্তু এই কোম্পানির সরস কাহিনীর পরিবর্তে শুধুই বিরস কাহিনী।Authority of United Airwsys বিমানটি চালু করে আপনারা বাচুন আমাদেরকেও বাচান।

  3. Robert Frost লিখেছেন- And miles to before I sleep
    And miles to go before I sleep অর্থ অনিবার্য মৃত্যুর মুখে পতিত হওয়ার আগে মানুষের জন্য কাজ করতে হবে।কিন্তু ইউনাইটেড এয়ারের ক্ষেত্রে ভিন্ন মাত্রা দেখা যায়।এর উদ্যোক্তারা সব মধু খেয়ে মধু বিহীন চাক সাধারন বিনিয়োগকারীদের কাধে চাপিয়ে দিয়েছে।নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে আন্ধকারে রেখে বা পাশ কাটিয়ে এসব হয়েছে।প্রতিটি শেয়ারের দাম ৩.১০টাকা। শুন্য হবে না তো?কার কাছে বিচার চাই?উদ্যোক্তাদের উদ্দেশ্যের উপর কোম্পানির ভাল মন্দ নির্ভর করে।উদ্যোক্তাদের খারাপ উদ্দেশ্যের কারনে একটি ভাল কোম্পানি পুজিবাজারে এসে বিনিয়োগকারিদের নি:স্ব করে দেয়।বিনিয়োগকারিদের বেকায়দায় ফেলে আজ পর্যন্ত কোন কোম্পানি টিকে থাকতে পারেনি।যদিও এক কোম্পানি ধবংস করে আরেক কোম্পানি গঠন করা এদের জন্য মামুলি ব্যপার। যেমন TAC Aviation.কিন্তু অভিশাপ বিষধর সাপের বিষের চেয়েও মারান্তক যা মানসিক শান্তি কেড়ে নেয় এবং অভিশাপ মৃত্যুর পরও বজায় থাকে।এই কোম্পানির মোট শেয়ার সং্খ্যা ৮২৮০৯৮৪৮০।কিন্তু এর উদ্যোক্তারা ধারন করছেন মাত্র৩৪৪৪৮৮৯৬(৪.১৬%)।কোম্পানিটি ধবংস হলে এদের তেমন ক্ষতি হবে না।কিন্তু সাধারন বিনিয়োগকারীরা নি:স্ব হয়ে যাবে।BSEC AND DSE এই কোম্পানিকে জবাবদিহিতার আওতায় আনবেন এবংবেবিচকের সাথে সমঝতার ব্যবস্থা করবেন সাধারন বিনিয়োগকারীদের রক্ষার স্বার্থে।

    • United Airwsys is waiting for final death decleration! Present activities proof so so. On 5November /2018 cost 2.80Tk/share.Hurrah !Directors of United Airways won.Alas! General Investors undone.Optimists wish in near or far future united air will raise 70Tk or 300 to 400Tk/share.If it may happen then the investors lucky. There is a proverb “Curiosity is good but curiosity without knowledge is foolish’. Cost per share continuously decreasing.Is it a good sign?2.80Tk/share!Perhaps, we
      do wrong.Impossible,2.80Tk/share.Money is not factor,factor is good willing or social value of a person.What are the characteristics of a knave company?Giving only stock divident, issuing right share in the excuse of extension, false income information,sell share by entrepreneur,involve in insider trading continuously share rate down trading and so on.However,all should come forward to resume united airways. Mr. MD of united air thinks it deeply to resume it immediately because of having potentialities of aviation sector in our present context.

  4. ২.৭০টাকা/শেয়ার।এর নাড়ি ভুড়ি বাহির হয়ে গেছে।সিনিয়র রিপোর্টার শত বাধা বিপত্তি পেরিয়ে ইউনাইটেড এয়ারের বাস্তব চিত্ত, আভাস , উজ্বল ভবিষ্যত নিয়ে মাসের পর মাস,বছরের পর বছর লেইখ্যা য্যাইতাছেন। ক্যাজ হইত্যাছে না।এবা র তাসবিরুল সাব এয়ারের পেটে প্যারেক ম্যাইরা এয়ারকে তেতুল টক খ্যাইয়ে এর সব বায়ু বাহির কইর‍্যা যবনিকা ঘ্যট্যাইবো। t তেতুল টক ভাল বায়ু নাশক কি না?

Md:Joynal Abedin শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন Cancel reply

Please enter your comment!
Please enter your name here