আশঙ্কা কাটছে ইউনাইটেড এয়ারের

8
32557

শাহীনুর ইসলাম : নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও ফের ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত দেশের একমাত্র বিমান কোম্পানি ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেড। দুটি কোম্পানির সঙ্গে যৌথভাবে বিমান পরিচালনা নিয়ে অগাস্ট মাসে চুক্তি এবং রি-আইপওতে আসার আভাস মিলেছে।

বিশেষভাবে পরিকল্পিত রুপরেখায় ‘ত্রিমূখী সম্ভাবনার’ কার্যক্রম নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে বিমান কর্তৃপক্ষ।

সব মিলে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেডের আশঙ্কা কাটতে শুরু করেছে। একইসঙ্গে আদালতের অনুমোদন না থাকায় বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) করতে না পারলেও ওভার দ্য কাউন্টার মার্কেটে (ওটিসি) যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন কোম্পানির চেয়ারম্যান।

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেড

অনিবার্য কারণবশত ২০১৬ সালের ৫ মার্চ থেকে বিমান উড্ডয়ন বন্ধ হয়। সেইসঙ্গে বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) করতে না পারায় ওভার দ্য কাউন্টার মার্কেটে (ওটিসি) প্রবেশের আশঙ্কা থাকলেও আদালতের নির্দেশনায় ওটিসিতে যাচ্ছে না।

আদালতের সেই নির্দেশনার কাগজপত্রাদী নিয়ন্ত্রক সংস্থা এবং দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে জমা দেয়া হয়েছে বলে সম্প্রতি জানিয়েছেন ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেড চেয়ারম্যান ক্যাপ্টেন তাসবিরুল আহমেদ চৌধুরী।

বিশেষ একটি সূত্র জানায়, ভারতের স্বনামধন্য একটি বিমান কোম্পানির সঙ্গে যৌথভাবে বাংলাদেশের বিমান পরিচালনা করতে নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েছে ইউনাইটেড এয়ার কর্তৃপক্ষ। এতে বাংলাদেশ সরকারেরও সায় আছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়।

আগামী অগাস্ট মাসে বাংলাদেশ সচিবালয়ে একটি বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে। সভায় বেসামরিক বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল, বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান জিয়াউল কবির ও ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেড চেয়ারম্যান ক্যাপ্টেন তাসবিরুল আহমেদ চৌধুরী উপস্থিত থাকবেন। এছাড়া সেই বৈঠকে আরো কারা থাকবেন এ নিয়ে বৈঠক করা হচ্ছে।

‘মুল্য সংবেদনশীল তথ্য’ হওয়ায় বিষয়টি নিয়ে কোনপক্ষই সরাসরি কথা বলতে চাইছেন না।

ইউনাইটেড এয়ার কোম্পানির সিনিয়র এক কর্মকর্তা চুক্তির জবাবে আলোচনা চলছে বলে স্বীকার করেন। তিনি স্টক বাংলাদেশকে বলেন, মৌখিকভাবে বেশ কয়েকবার যৌথভাবে অপারেট করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে এমডি স্যার ভালো বলতে পারবেন।

ক্যাপটেন তাসবিরুল আহমেদ চৌধুরী

জানতে চাইলে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেডের চেয়ারম্যান ক্যাপটেন তাসবিরুল আহমেদ চৌধুরী বলেন, আমরা বিমান অপারেট করার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। সরকারও সহযোগিতা করছে। আশা করছি, বিনিয়োগকারীদের সেই অপেক্ষার অবসান হবে।

তবে ‘মূল্য সংবেদনশীল বিষয়’ হওয়ায় চুক্তি নিয়ে আগাম কোনভাবেই তিনি আলোচনার শিরোনাম হতে চান না। তিনি বলেন, মূল্য সংবেদনশীল বিষয় নিয়ে কথা বলা সমিচীন হবে না। এছাড়া আরো একটি বিদেশি কোম্পানি আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলে তিনি জানান।

কোম্পানির বিভিন্ন সূত্র জানায়, তিন বছর ধরে বন্ধ থাকা বিমানের উড্ডয়ন শুরু করতে নানামূখী পদক্ষেপ থাকলেও আর্থিক সংকটের কারণে তা ব্যহত হচ্ছে। তবে ব্যবস্থাপনা ব্যয়ের জন্য আইসিবিতে দ্বিতীয় মেয়াদে আবেদন করা ২২৪ কোটি টাকা পাওয়ারও আভাস মিলেছে।

২০১৭ সালে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক : ছবি সংগৃহিত

অন্যদিকে, দেশের সেরা একটি মাচেন্ট ব্যাংকের সিইও নাম না প্রকাশ করার শর্তে বলেন, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেডের কর্তৃপক্ষ রি-আইপিওতে আসার চেষ্টা করছে। গত বছরে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করার পরে কাজ শুরু হয়।

সরকারের সায় নিয়ে দেশের সেরা বেসরকারি খাতের বিমান কোম্পানির কর্তৃপক্ষ এই প্রচেষ্টা করছে। তবে কতো টাকা, কি পরিমাণ শেয়ার এবং এর অগ্রগতি নিয়ে আরো জানতে চাইলে তিনি আর তথ্য দিতে রাজী হননি।

তবে বন্ডের ২২৪ কোটি টাকা সম্পর্কে রাষ্ট্রায়ত্ব প্রতিষ্ঠান ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) সিইও সোহেল রাহমান সম্প্রতি স্টক বাংলাদেশকে বলেন, আমাদের সে চেষ্টা আছে এবং সরকারেরও সদিচ্ছা রয়েছে। তবে এয়ার কর্তৃপক্ষ তাদের কোম্পানির আর্থিক সব প্রতিবেদন জমা না দেয়ায় আর এগুতে পারছি না। তবে সরকার চাইছে, আবারো এই বিমানের কাযক্রম চালু হোক।

বিশেষ সূত্র আরো জানায়, বিমান কর্তৃপক্ষের রি-আইপিওতে আসার চেষ্টা করছে। যে কারণে সব আর্থিক প্রতিবেদন রাষ্ট্রায়ত্ব প্রতিষ্ঠান আইসিবিতে জমা দেয়া হয়নি। বিশেষ পরিকল্পিত একটি রুপরেখার ভেতর দিয়ে ত্রিমূখী সম্ভাবনার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বিমান কোম্পানির কর্তৃপক্ষ।

তবে কবে নাগাদ রৌদ্রকরোজ্জল দুপুরে ডানা মেলবে বিমান, তা অজানা। কিন্তু নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও ফের ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেড।

8 COMMENTS

  1. Price Sensitive informations are available regarding Unitedair ways year after year.But no influence of price sensitive info on per share of this company.In the past such kind of infos were published successively at Stock Bangladesh.Unfortunately all were fake and bogus. As a result general investors were frauded and loss of their hard earned penny. There should be transparency and accountability in publishing news.

      • Absolutely all the investors wish unbelivable success of unitedair ways because it will change the lot or fate of investors as well as the country earns foreign exchange or currency.Semblance and semblance- tri potentialities of united air.. agreement with other companies… united air soon fly again.. but regreat that all are confined within the papers. In the past it was rain,per share price was 70 Tk and in future it will be storm-saying means living in a cacoon.One can owner of this company paying only 3.30-3.60Tk/share implies that the company is unhealthy. Probaboly it is the lowest price among the listed company of DSE.There is a proverb-Failure is the pillar of success but how many failure of pillars?Total number of securities of this company 828098480 of which directors hold only only only 34448896only.It is pathetic and painful.However, we wish it may fly soon.But when day is unknown.

Md:Joynal Abedin শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন Cancel reply

Please enter your comment!
Please enter your name here