সিনিয়র রিপোর্টার : মেট্রো গ্রুপের দুটি কোম্পানি ম্যাকসন্স স্পিনিং মিলস এবং মেট্রো স্পিনিং মিলস লিমিটেড। ২০০৮ সালে আইপওর মাধ্যমে ম্যাকসন্স স্পিনিং পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। এরপরে ২০০৯ সালে নতুন করে বাণিজ্য বৃদ্ধি এবং মেশিনারিজ ক্রয়সহ বিভিন্ন কাজের অগ্রগতির জন্য রাইট শেয়ারে অনুমোদন পায়।

রাইট শেয়ারে উত্তোলিত ১৬২ কোটি টাকাসহ প্রায় ২০০ কোটি টাকা প্রকল্পের বাণিজ্যিক উৎপাদন আগামী নভেম্বরে করতে যাচ্ছে কোম্পানির কর্তৃপক্ষ। দ্বিমূখী সম্ভাবনার দুয়ারে ঘুরপাক খাচ্ছে কোম্পানিটি।

একইসঙ্গে ম্যাকসন্স স্পিনিংস মিলস কর্তৃপক্ষ শেয়ারের ক্যাটাগরি পরিবর্তন করবে বলে আভাস মিলেছে। কোম্পানির উদ্যোক্তাদের লভ্যাংশ নির্ধরণী সভা সোমবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

ডিএসইর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত কোম্পানির আয়ের চিত্র অনুসারে দেখা গেছে, কোম্পানির বর্তমানে শেয়ার প্রতি ইপিএস রয়েছে .৩১ পয়সা। নতুন করে আরো যোগ হওয়ার সম্ভাবনায় লভ্যাংশ প্রদানের যথেষ্ট সম্ভাবনার সৃষ্টি হয়েছে।

তাছাড়া ২০১৫ সালে কোম্পানির আয় ৬২ কোটি ৫৮ লাখ এবং ২০১৬ সালে  ৮৪ কোটি ৪৬ লাখ টাকা টাকা জমা রয়েছে। দুই বছরে কোম্পানি লভ্যাংশ ঘোষণা না করায় প্রায় ১৪১ কোটি টাকা হিসেবে মূলধন হিসেবে জমা রয়েছে। নতুন বছরে আরো প্রায় ৭০ কোটি টাকা মিলে প্রায় দু’শ কোটি টাকায় লভ্যাংশ ঘোষণার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে। ক্যাটাগরি পবির্তন ও লভ্যাংশ ঘোষণার উদাহরণ হিসেবে কোম্পানির বিশেষ সূত্র এমন তথ্য নিশ্চিত করেছে।

অনেক বিনিয়োগকারী আশা করছেন, দু’বছর বাদে কোম্পানির কর্তৃপক্ষ এবারে বিশেষ ঘোষণা দেবে। কারণ হিসেবে বলছেন, গত দুই বছরে কোম্পানি লভ্যাংশ না দেয়ায় ১৪১ কোটি টাকা জমা রয়েছে। নতুন বছরের আয় মিলে কর্তৃপক্ষ অনায়াসে লভ্যাংশ প্রদান করতে পারবে।

বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন চালু সম্পর্কে কর্তৃপক্ষ জানায়, ২০০৯ সালে রাইট শেয়ারে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে ১৫ টাকা প্রিমিয়ামসহ মোট ২৫ টাকা শেয়ারপ্রতি গ্রহণ করে ম্যাকসন্সস্পিনিংস মিলস কোম্পানি। রাইট শেয়ার থেকে প্রায় ১৬২ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হয়।

নানান জটিলতা অতিক্রম করে কোম্পানির প্রায় ২০০ কোটি টাকার প্রকল্পের (দ্বিতীয় ফেস) উৎপাদন শুরু হবে। নতুন অনেক মেশিন ইতোমধ্যে পরিবর্তন করা হয়েছে। বিদেশ থেকে নতুন মেশিন এনে প্রতিস্থাপনও করা হয়েছে।

কোম্পানির কর্তৃপক্ষ জানায়, চলতি অক্টোবর মাসে কেবল লাগানোর কাজ চলছে। বিদ্যুৎসংযোগের জন্য পারটেক্স কেবল থেকে নতুন কেবল সংগ্রহ করা হচ্ছে, কোম্পানির হিসাব বিভাগ সূত্রে জানা যায়।

নভেম্বরে শুরু হলে নতুন বছরের প্রথম প্রান্তিকে কোম্পানির আয়ের চিত্র প্রকাশ পাবে। আপাতত কোম্পানির কর্তৃপক্ষ ম্যাকসন্স স্পিনিংস মিলসের দিকে দৃষ্টি দিচ্ছে। কারণ হিসেবে তুলে ধরা হয়, কোম্পানির কর্তৃপক্ষ প্রতিটি শেয়ারের মূল্য ২৫ টাকা হিসেবে গ্রহণ করেছে। কর্তৃপক্ষ লভ্যাংশ ঘোষণা মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের কিছু ফেরত দিতে চান।

উৎপাদন বৃদ্ধি সম্পর্কে গ্রুপের সিএফও ইউনুস ভুঁইয়া বলেন, ‘বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন বৃদ্ধির খবর সংবেদনশীল তথ্য। এটা আমরা বিনিয়োগকারীদের এভাবে জানাতে পারিনা। এরকম তথ্য থাকলে ডিএসইর মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের জানাবো।’

ম্যাক গ্রুপের দুটি কোম্পানি ম্যাকসন্স স্পিনিংস মিলস লিমিটেড এবং মেট্রো স্পিনিং মিলস লিমিটেড জেড ক্যাটাগরিতে শেয়ার লেনদেন করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here