আরগন ডেনিমসের মুনাফা দ্বিগুণ

0
1512

স্টাফ রিপোর্টার : হিসাব বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে আরগন ডেনিমস লিমিটেডের রফতানি আয় ১০ শতাংশের বেশি বেড়েছে। এ সময়ে প্রশাসনিক ও বিক্রি বাবদ খরচ কমানোর পাশাপাশি ঋণ পরিশোধেও ব্যয় কমিয়ে আনতে সক্ষম হয় বস্ত্র খাতের কোম্পানিটি।

সব মিলিয়ে সর্বশেষ অনিরীক্ষিত প্রান্তিক প্রতিবেদনে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় তারা ৫৬ দশমিক ২৭ শতাংশ বেশি মুনাফা দেখায়।

সর্বশেষ অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে, জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে আর্গন ডেনিমসের রফতানি আয় তথা বিক্রি দাঁড়ায় ৭৮ কোটি ৭৩ লাখ ৯৮ হাজার ২০৯ টাকা, আগের বছর একই সময়ে যা ছিল ৭১ কোটি ৩৯ লাখ ৩৫ হাজার ৯৯০ টাকা। বিক্রীত পণ্যের উত্পাদন খরচও প্রায় ১০ শতাংশ হারে বেড়ে দাঁড়ায় ৬০ কোটি ৬৪ লাখ ৩৬ হাজার টাকা। মোট (গ্রস) মুনাফা হয় ১৮ কোটি ৯ লাখ ৬১ হাজার ৮৬৩ টাকা, আগের বছর একই সময়ে যা ছিল প্রায় ১৬ কোটি ১০ লাখ টাকা।

গেল প্রান্তিকে রফতানির বিপরীতে সরকারের কাছ থেকে প্রণোদনা হিসেবে কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদনে যোগ হয়েছে ৯৮ লাখ ৬২ হাজার ৯৭৫ টাকা, ২০১৬ সালের প্রথম তিন মাসে যা ছিল ৪৮ লাখ ৪৫ হাজার ৮১৬ টাকা। একই সময়ের ব্যবধানে কোম্পানিটির প্রশাসনিক ব্যয় ২ কোটি ৭০ লাখ ৫১ হাজার থেকে ২ কোটি ৪৯ লাখ ২০ হাজারের ঘরে নেমে এসেছে।

বিক্রি বাড়লেও গেল প্রান্তিকে কোম্পানিটি বিক্রি ও বিতরণ বাবদ খরচ ৮৫ থেকে ৫৭ লাখ টাকায় নামিয়ে আনতে সক্ষম হয়। এদিকে প্রায় ৪৩ শতাংশ কমে ২ কোটি ৩৩ লাখ ৯৯ হাজার ৬০২ টাকায় নেমে এসেছে কোম্পানির ঋণ পরিশোধের ব্যয়।

এরপর ওয়ার্কার্স প্রফিট পার্টিসিপেশন ফান্ড ও কর বাবদ ব্যয় আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় বেড়েছে। তবে বিলম্বিত কর তুলনামূলক কমেছে। ২০১৬ সালের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে অন্যান্য আয় না হলেও চলতি বছর একই সময়ে কোম্পানিটি এ খাতে ৪৯ হাজার ৪৪৮ টাকা আয় দেখিয়েছে।

সব মিলিয়ে তৃতীয় প্রান্তিকে কোম্পানির নিট মুনাফা এক বছর আগের তুলনায় ৩ কোটি ৯৮ লাখ ৬৮ হাজার ৯৩৭ টাকা বা ৫৬ দশমিক ২৭ শতাংশ বেড়ে ১১ কোটি ৭ লাখ ২৪ হাজার ৩২১ টাকায় উন্নীত হয়েছে। শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) দাঁড়িয়েছে ৯৭ পয়সা।

এদিকে হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে আর্গন ডেনিমসের নিট মুনাফা ২২ কোটি ১৯ লাখ ৬৮ হাজার ২২৯ থেকে ৩০ কোটি ৮৩ লাখ ৮৫ হাজার ৭২৩ টাকায় উন্নীত হয়েছে। শতকরা হিসেবে ৯ মাসে কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় ৩৯ শতাংশ বেড়েছে। এ সময়ের অনিরীক্ষিত ইপিএস দাঁড়িয়েছে ২ টাকা ৭০ পয়সা।

সম্পদ পুনর্মূল্যায়নসহ ৩১ মার্চ কোম্পানির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়ায় ২৫ টাকা ৩৯ পয়সা, সম্পদ পুনর্মূল্যায়ন ছাড়া যা ২৪ টাকা ২৫ পয়সা।

জুন ক্লোজিংয়ের বাধ্যবাধকতায় ২০১৬ সালে ১৮ মাসে হিসাব বছর গণনা করে আর্গন ডেনিমস। ৩০ জুন পর্যন্ত ১৮ মাসে কোম্পানিটির ইপিএস হয় ৪ টাকা ৩৯ পয়সা, আগের বছর একই সময়ে যা ছিল ৪ টাকা ৬ পয়সা। এ সময়ের জন্য ১০ শতাংশ নগদ ও ১৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ পেয়েছেন তাদের শেয়ারহোল্ডাররা। এর আগে ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য ২০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দেয় আর্গন ডেনিমস।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সর্বশেষ ৩১ টাকায় আর্গন ডেনিমসের শেয়ার হাতবদল হয়, যা আগের দিনের চেয়ে ১ দশমিক ৬৪ শতাংশ বেশি। গত এক বছরে শেয়ারটির সর্বোচ্চ দর ছিল ৩৯ টাকা ও সর্বনিম্ন ২১ টাকা।

দীর্ঘমেয়াদে আর্গন ডেনিমসের ঋণমান ‘এ প্লাস’ এবং স্বল্পমেয়াদে ‘এসটি-৩’। গত বছরের শেষ দিকে এ মূল্যায়ন করে ক্রেডিট রেটিং ইনফরমেশন অ্যান্ড সার্ভিসেস লিমিটেড।

২০১৩ সালে তালিকাভুক্ত এ কোম্পানির অনুমোদিত মূলধন ১৫০ কোটি ও পরিশোধিত মূলধন ১১৪ কোটি ২৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা। রিজার্ভে রয়েছে ৮১ কোটি ৯০ লাখ টাকা। বাজারে মোট শেয়ার ১১ কোটি ৪২ লাখ ৬৪ হাজার, যার ৪০ দশমিক ৪৫ শতাংশ কোম্পানির উদ্যোক্তা-পরিচালকদের হাতে, ১৬ দশমিক ১৪ শতাংশ প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী, বিদেশী ২ দশমিক ৩৭ ও বাকি ৪১ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীর হাতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here