আমরা টেকনোলজির দর বেড়েছে ৩২ শতাংশ

0
289
এস বি ডেস্ক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত সপ্তাহে আমরা টেকনোলজিসের দর বেড়েছে ৩২ দশমিক ৪৯ শতাংশ। ফলে কোম্পানিটি উঠে আসে সাপ্তাহিক দরবৃদ্ধির তালিকায় চতুর্থ স্থানে। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির ১৪ কোটি ৭৩ লাখ ৫ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।
বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, পাঁচ কার্যদিবসেই এর দর বেড়েছে। বৃহস্পতিবার এর দর বাড়ে ৯ দশমিক ৭৯ শতাংশ বা ২ টাকা ৮০ পয়সা। দিনভর দর ২৮ টাকা ১০ পয়সা থেকে ৩১ টাকা ৪০ পয়সায় ওঠানামা করে। সর্বশেষ লেনদেন হয় ৩১ টাকা ৪০ পয়সায়। দিন শেষে দর দাঁড়ায় ৩১ টাকা ৪০ পয়সা, যা আগের কার্যদিবসে ছিল ২৮ টাকা ৬০ পয়সা। এদিন ২১ লাখ ২৫০টি শেয়ার ১ হাজার ৯৬৭ বারে লেনদেন হয়। এক মাসে এর সর্বোচ্চ দর ৩১ টাকা ৪০ পয়সা ও সর্বনিম্ন ২৩ টাকা।
আমরা টেকানোলজি তালিকাভুক্তির প্রায় সাত মাস পর সম্প্রতি প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থ ব্যবহার প্রক্রিয়া পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে । কোম্পানির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আইপিওতে অর্থ সংগ্রহের সময় ইনভেস্টমেন্ট ইন ম্যানেজড সার্ভিসেস কার্যক্রমে কোম্পানি ১২ কোটি ৮৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যবহারের কথা উল্লেখ করে। তবে তা পরিবর্তন করে কোম্পানির ব্যাংক ঋণ পরিশোধ ও ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ে (আইআইজি) খাতে বিনিয়োগ করা হবে।
উল্লেখ্য, আমরা টেকনোলজিস আইপিওর মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে ৫১ কোটি ৭৭ লাখ ২৮ হাজার টাকা সংগ্রহ করে। এর মধ্যে ৩৫ কোটি ৮৫ লাখ ১৯ হাজার টাকা ব্যাংক ঋণ পরিশোধের জন্য ব্যয় করা হবে বলে প্রসপেক্টাসে উল্লেখ করা হয়েছিল।
কোম্পানিটি ২০১২ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য ২০ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ দেয়। নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে, এ সময় কর-পরবর্তী নিট মুনাফা হয় ৫ কোটি ৮৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ২ টাকা ৪৬ পয়সা।
সর্বশেষ প্রকাশিত অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে, ৬ মাসে কোম্পানিটির কর-পরবর্তী নিট মুনাফার পরিমাণ ৩ কোটি ১২ লাখ ১০ হাজার টাকা ও ইপিএস ৬২ পয়সা। আগের বছর একই সময় মুনাফার পরিমাণ ছিল ৩ কোটি ৯ লাখ ৮০ হাজার টাকা ও ইপিএস ১ টাকা ৮ পয়সা। ২০১২ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিটির ১০০ কোটি টাকার অনুমোদিত ও ৫০ কোটি ৩০ লাখ টাকার পরিশোধিত মূলধন রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here