আনোয়ার গ্যালভানাইজিং বিশাল সম্ভাবনার পথে

0
810

স্টাফ রিপোর্টার : আনোয়ার গ্যালভানাইজিং লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ ব্যবসা সম্প্রসারণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কোম্পানিটি ব্যবসা সম্প্রসারণে ২৭ কোটি ৩৭ লাখ টাকা বিনিয়োগ করবে। এতে বছরে কোম্পানিটির উৎপাদন বাড়বে ২ হাজার ৪১৭ টন।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে জানা, কোম্পানিটিকে ১ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য ডেসকো অনুমোদন পত্র দিয়েছে। যা কোম্পানির ব্যবসা সম্প্রসারণের কাজের সহায়তায় ব্যবহার করা হবে। কোম্পানিটি নতুন প্রকল্পে অর্থায়নে নিজস্ব বিভিন্ন সম্পদ এবং ঋণের অর্থ ব্যবহার করবে। নতুন প্রকল্পের কাজ ২০২২ সালের চতুর্থ প্রান্তিকে শুরু করা যাবে বলে কোম্পানিটি আশা করছে।

কোম্পানিটির সম্প্রসারণের কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর প্রতি বছর উৎপাদনক্ষমতা দাঁড়াবে ৪ হাজার ৭২৫ টন। কোম্পানিটি আরো জানায়, উৎপাদিত অতিরিক্ত পণ্য আমদানি করা পণ্যের জায়গা সরাসরি প্রতিস্থাপন করবে। এতে কোম্পানিটির মার্কেট শেয়ার ২৫ থেকে বেড়ে ৫২ শতাংশে দাঁড়াবে।

সমাপ্ত ২০২০-২১ হিসাব বছরের প্রথম নয় মাসে (জুলাই-মার্চ) কোম্পানিটির রাজস্ব আয় হয়েছে ৪৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৮ হাজার ৬৫৩ টাকা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৩৯ কোটি ৪৩ লাখ ৯২ হাজার ১৬৭ টাকা। এ হিসাবে নয় মাসে কোম্পানিটির রাজস্ব আয় বেড়েছে ৪ কোটি ৩৩ লাখ ৭৬ হাজার ৪৮৬ টাকা।

আলোচ্য সময়ে প্রতিষ্ঠানটির নিট মুনাফা হয়েছে ৩ কোটি ২৪ লাখ ৪৭ হাজার ৫৫৭ টাকা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ২ কোটি ১৭ লাখ ৮৫ হাজার ৬৩২ টাকা। এ হিসাবে হিসাব বছরের প্রথম নয় মাসে নিট মুনাফা ১ কোটি ৬ লাখ ৬১ হাজার ৯২৫ টাকা বেড়েছে। নয় মাসে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ১৩ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ১ টাকা ৪৩ পয়সা। ৩১ মার্চ শেষে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ১১ টাকা ৫২ পয়সা।

এদিকে সর্বশেষ অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে, চলতি হিসাব বছরের অর্ধবার্ষিকে (জুলাই-ডিসেম্বর) আনোয়ার গ্যালভানাইজিংয়ের ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৬৭ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৮৬ পয়সা। দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর) ইপিএস হয়েছে ৭৩ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৫৪ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠানটির এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ১২ টাকা ৫৩ পয়সা।

সমাপ্ত ২০২০ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের মোট ১৫ শতাংশ লভ্যাংশ দিয়েছে আনোয়ার গ্যালভানাইজিং। এর মধ্যে ১০ শতাংশ নগদ ও বাকি ৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ২ টাকা ৩ পয়সা, আগের হিসাব বছরে যা ছিল ১ টাকা ৫১ পয়সা। ৩০ জুন প্রতিষ্ঠানটির এনএভিপিএস দাঁড়ায় ১০ টাকা ৮৫ পয়সা, আগের হিসাব বছর শেষে যা ছিল ৯ টাকা ৮৪ পয়সা।

২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরে শেয়ারহোল্ডারদের ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে আনোয়ার গ্যালভানাইজিং। ২০১৮ হিসাব বছরেও একই হারে নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল তারা।

এছাড়া ২০১৭ হিসাব বছরের জন্য ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ পেয়েছিলেন কোম্পানিটির শেয়ারহোল্ডাররা। সর্বশেষ রেটিং অনুযায়ী, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং লিমিটেডের ঋণমান দীর্ঘমেয়াদে ‘ট্রিপল বি প্লাস’ ও স্বল্পমেয়াদে ‘এসটি-থ্রি’।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here