ফের আইপিও প্রস্তুতি নিচ্ছে ২৭ কোম্পানি, আসছে লুব রেফ

0
4189

সিনিয়র রিপোর্টার : বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (পাবলিক ইস্যু) রুলস, ২০১৫ অনুসারে পুঁজিবাজারে আসতে চাওয়া ২৭টি কোম্পানি আটকা পড়ে। কোম্পানিগুলো পাবলিক রুলসের খসড়া সংশোধনীর নতুন নিয়মের শর্ত পূরণ করে ফের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) আসার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

নতুন নিয়মে আটকা পড়া ২৭টি কোম্পানির মধ্যে ৯টি বুক বিল্ডিং পদ্ধতির এবং বাকি ১৮টি কোম্পানি ফিক্সট প্রাইসের। এসব কোম্পানির কর্তৃপক্ষ এবং ইস্যু ব্যবস্থাপক ফের আইপিও অনুমোদন পেতে নতুন নিয়মে চেষ্টা করছে।

অন্যদিকে কোম্পানিগুলোর মধ্যে লুব-রেফ (বাংলাদেশ) লিমিটেড বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে আইপিও অনুমোদনের প্রক্রিয়ায় রয়েছে। কমিশনে আবেদিত ৯টি কোম্পানির মধ্যে আইপিও অনুমোদনের প্রথমে রয়েছে কোম্পানিটি।

কমিশনের বিশেষ একটি সূত্র মঙ্গলবার জানায়, বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) অনুমোদনের ক্ষেত্রে প্রথম স্থানে রয়েছে লুব-রেফ (বাংলাদেশ) লিমিটেড। চলতি জুলাই মাসের শেষের দিকে আইপিও অনুমোদনের আভাস মিলেছে।

একই সঙ্গে ‘আইপিও অনুমোদন সংক্রান্ত সব লেটার’ কমিশনে জমা দেয়া এবং ‘নতুন শর্তাবলী পরিপালন’ করা হয়েছে জানান লুব-রেফ (বাংলাদেশ) লিমিটেডের সিএফও মফিজুর রহমান।

নতুন নিয়মানুসারে, বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) ক্ষেত্রে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের আবেদন ৬৫ শতাংশের কম জমা পড়লে সংশ্লিষ্ট আইপিও বাতিল হবে। আর ৬৫ শতাংশ বা এর বেশি আবেদন জমা পড়লে বাকি শেয়ার আন্ডাররাইটার নেবে। অন্যদিকে যোগ্য বিনিয়োগকারীর কোটায় সব শেয়ার বিক্রি না হলে আইপিও বাতিল হবে।

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (পাবলিক ইস্যু) রুলস, ২০১৫-এর খসড়া সংশোধনীতে এ নিয়ম করা হয়। জনমত জরিপের জন্য খসড়া সংশোধনীটি বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ৯ জুন প্রকাশ করেছে।

লুব রেফ ১৫০ কোটি টাকা মূলধন উত্তোলন করবে এবং উত্তোলিত ৯৮ কোটি টাকায় ব্যবসা সম্প্রসারণ, ৪৬ কোটি ব্যাংক ঋণ পরিশোধ ও আইপিওতে ব্যয় করবে কোম্পানি।

উল্লেখ্য, রোড শো সম্পন্নকারী কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছে এনআরবি ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড এবং রেজিষ্টার টু দি ইস্যু হিসেবে কাজ করছে বেটাওয়ান ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here