সোমবার ৪ কোম্পানির সভা

0
511

স্টাফ রিপোর্টার : সোমবার ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক খাতের ৪ কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকে গত ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে সভায়। ডিএসই সূত্রে জানা গেছে।

কোম্পানিগুলো হলো-আইডিএলসি ফাইন্যান্স, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক, প্রাইম ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট, প্রাইম ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড।

আইডিএলসি ফাইন্যান্স : ২০১৫ সালে আইডিএলসি ফাইন্যান্স শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ২৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল।

ওই বছর কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৫ টাকা ৮১ পয়সা। এসময় শেয়ারপ্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) ছিল ৩০ টাকা ৯৭ পয়সা। ২০১৪ সালে আইডিএলসি ৩৫ শতাংশ, ২০১৩ ও ১২ সালে ৩০ শতাংশ, ২০১১ সালে ২৫ শতাংশ লভ্যাংশ দিয়েছিল।

সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক : সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড (এসআইবিএল) গত বছর শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ২০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করে। এর মধ্যে ১৫ শতাংশ নগদ এবং ৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ২ টাকা ৯১ পয়সা। এসময় শেয়ারপ্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) ছিল ১৮ টাকা ৪২ পয়সা।

২০১৪ সালে ১৮ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল। ২০১২ সালে ১০ শতাংশ বোনাস ও ৫ শতাংশ নগদ এবং ২০১১ সালে সাড়ে ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল।

প্রাইম ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি : প্রাইম ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি ২০১৫ সালে শেয়ারহোল্ডারদের সাড়ে ১২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল। আলোচ্য সময়ে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ২ টাকা ১৫ পয়সা। এসময় শেয়ারপ্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) ছিল ১৭ টাকা ৪২ পয়সা।

২০১৪ সালে কোম্পানিটি ১০ শতাংশ নগদ ও ৫ শতাংশ বোনাস, আগের দুই বছর ১৫ শতাংশ করে বোনাস এবং ২০১১ সালে ১০ শতাংশ বোনাস দিয়েছিল।

প্রাইম ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট : গত বছর প্রাইম ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেসন্টমেন্ট লিমিটেড শেয়ারহোল্ডারদের কোনো লভ্যাংশ দেয়নি। ওই বছর কোম্পানির শেয়ারপ্রতি লোকসান ছিল ১ টাকা ৫৩ পয়সা। এসময় শেয়ারপ্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) ছিল ১৩ টাকা ৬৯ পয়সা।

২০১৫ সালে প্রাইম ফাইন্যান্স ১২.৫০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল। আগের বছর দিয়েছিল ১৪ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ। ২০১২ ও ২০১১ সালে যথাক্রমে ৩০ ও ৪০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছিল কোম্পানিটি।