আইপিও আবেদনে ব্রোকারেজ হাউসের ফি ২০ টাকা

6
5528

সিনিয়র রিপোর্টার : ব্রোকারেজ হাউসের আয় বাড়াতে প্রতিটি প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) আবেদনের ওপর কমিশন ফি পুনর্নির্ধারণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি। বিষয়টি নিয়ে উভয় স্টক এক্সচেঞ্জের সঙ্গে আলোচনা করে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) শিগগিরই এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

তবে প্রতি আইপিও আবেদনের ওপর ব্রোকারেজ হাউসেকে ২০ টাকা করে কমিশন ফি দেওয়ার জন্য বিএসইসিকে অনুরোধ জানিয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কর্তৃপক্ষ। কিন্তু বিএসইসি সার্বিক দিক বিবেচনা করে তা ১০ টাকা করা যায় কিনা, সে বিষয়ে ডিএসইর মতামত চেয়েছে বলে জানা গেছে।

নতুন ও পুরাতন উভয় নিয়েমে আইপিও আবেদন করা গেলেও আগামী এপ্রিল মাস থেকে বিদ্যমান এ নিয়ম বন্ধ হচ্ছে। এরপর থেকে শুধুমাত্র ব্রেকারেজ হাউসের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীরা আবেবদন করতে পারবেন।

এদিকে দীর্ঘদিন ধরে প্রতিটি আইপিও আবেদনের ওপর ব্রোকারেজ হাউসকে আড়াই টাকা করে কমিশন ফি দেয়া হতো। কিন্তু বর্তমান প্রেক্ষাপটে বাজারে লেনদেন কমে যাওয়ায় ব্রোকারেজ হাউসগুলোর আর্থিক অবস্থা খুব নাজুক হয়ে পড়ে। তাই ব্রোকারেজ হাউসগুলোর আয় বাড়তেই আইপিও আবেদনের ওপর কমিশন ফি পুনর্নির্ধারণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএসইসির একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, ব্রোকারেজ হাউসের সক্ষমতা বাড়াতেই ডিএসই কমিশন বাড়ানোর জন্য আবেদন জানিয়েছিল। এ বিষয়ে এখনো চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। বিষয়টি এখনো আমরা পর্যবেক্ষণ করছি।

তিনি বলেন, আমরা প্রতিটি আইপিও আবেদনেরর ক্ষেত্রে ব্রোকারেজ হাউসের কমিশন ফি বাড়ানোর জন্য বিএসইসিকে অনুরোধ জানিয়েছি। বিএসইসি এখনো বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছে। তবে আমাদের প্রস্তাবের পরিপ্রেক্ষিতে কমিশন ফি ১০ টাকা করা যায় কিনা, সে বিষয়ে মতামত চেয়েছে বিএসইসি।

6 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here