স্টাফ রিপোর্টারঃ চলতি অর্থবছরের জন্য মুদ্রানীতি ঘোষণা করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক। আগামী ২৯ জানুয়ারি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির ২০১৭-১৮ অর্থবছরের শেষ অর্ধাংশের মুদ্রানীতি তুলে ধরবেন।

ওইদিন দুপুর আড়াইটায় বাংলাদেশ ব্যাংকের মূল ভবনের ৫ম তলার জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের দ্বিতীয়ার্ধের (জানুয়ারি-জুন, ২০১৮) জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের মুদ্রানীতি ঘোষণা করা হবে।

মূল্যস্ম্ফীতি নিয়ন্ত্রণকে অগ্রাধিকার দিয়ে বেসরকারি খাতে ঋণ যোগানে সংকোচনমূলক মুদ্রানীতি ঘোষণা করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক। আর নতুন মুদ্রানীতি বিভিন্ন লক্ষ্যমাত্রা প্রাক্কলনের ক্ষেত্রে খুব একটা পরিবর্তন আসছে না বলে জানা গেছে।

প্রাপ্ত তথ্য মতে, মুদ্রা পরিস্থিতির ওপর প্রতি ছয় মাসের আগাম মুদ্রানীতি ঘোষণা করে বাংলাদেশ ব্যাংক। চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধের মুদ্রানীতিতে ডিসেম্বর নাগাদ বেসরকারি খাতে ঋণ যোগানের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয় ১৬ দশমিক ২০ শতাংশ। তবে এ সময়ে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১৮ দশমিক ১৩ শতাংশ। আগের মুদ্রানীতিতে আগামী জুনে তা ১৬ দশমিক ৩০ শতাংশে সীমিত রাখার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছিল। এবারও এ লক্ষ্যমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে বলে জানা গেছে।

অন্যদিকে ব্যাংকগুলোর আগ্রাসী বিনিয়োগ ঠেকাতে এরই মধ্যে বিভিন্ন উদ্যোগের কথা জানিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এডভান্স ডিপোজিট রেশিও (এডিআর) কমানো হতে পারে বলে গত ৩ জানুয়ারির ব্যাংকার্স সভায় বলা হয়েছে। যদিও এখন এডিআর হিসাবায়নে কোনো পরিবর্তন নাও আসতে পারে বলে ধারনা করছেন অনেকেই।

উল্লেখ্য, বছরের একটি নির্দিষ্ট সময়ে বাজারে কি পরিমাণ অর্থের প্রবাহ থাকবে, সেই অনুযায়ী মুল্যস্ফিতি নিয়ন্ত্রণে কি ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হবে তার আগাম ধারণা দিতে মুদ্রানীতি ঘোষণা করে থাকে বাংলাদেশ ব্যাংক। প্রতি ছয় মাস অন্তর বছরে দুইবার মুদ্রানীতি ঘোষণা করা হয়।

1 COMMENT

Hasib শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন Cancel reply

Please enter your comment!
Please enter your name here